হিজাব তো ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের একটি নয়, তাহলে এটা এত বেশি গুরুত্বপূর্ণ কেন?

‘হিজাব তো ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের একটি নয়, তাহলে এটা এত বেশি গুরুত্বপূর্ণ কেন?’

সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য

এটা একটা ভুল কথা, কারণ হিজাব নারীদের জন্য অত্যাবশ্যক/ফরয। স্বয়ং আল্লাহ্ নারীদের আদেশ করেছেন তারা যেন তাদের সৌন্দর্যকে আবৃত করে, যার মধ্যে রয়েছে মুখমন্ডল আবৃত করা, বক্ষদেশসহ তাদের যাবতীয় সৌন্দর্য আবৃত করা।এটাকে নারীদের জন্য ঢাল হিসেবে অমর্যাদা ও প্রলোভনের বিরুদ্ধে ব্যবহারের আদেশ করা হয়েছে। কারণ, নারী জাতি হল সকল বাসনার কেন্দ্রবিন্দু এবং যারা তাদেরকে প্রলোভনের বস্তু হিসেবে দেখে তাদের প্রলোভনের কেন্দ্রবিন্দু। তাই, যখন একজন নারী তার সৌন্দর্য অনাবৃত করবে, সেটা মানুষের কামনাকে উত্তেজিত করবে এবং মানুষ তার প্রতি আকৃষ্ট হবে ও তাকে অনুসরণ করবে।

এই বিষয়টি নানা ধরনের অনৈতিক কার্যকলাপের উৎস যার মধ্যে রয়েছে ব্যভিচার ও এর দিকে চালিত করার নানাবিধ উপায়সমূহ। সুতরাং, হিজাব নারীদের জন্য ফরয এবং এটাকে তাদের উপর অত্যাবশ্যক করা হয়েছে নিম্নোক্ত আয়াতের মাধ্যমেঃ

“ঈমানদার নারীদেরকে বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নত রাখে এবং তাদের যৌন অঙ্গের হেফাযত করে। তারা যেন যা সাধারণতঃ প্রকাশমান, তা ছাড়া তাদের সৌন্দর্য প্রদর্শন না করে এবং তারা যেন তাদের মাথার ওড়না বক্ষ দেশে ফেলে রাখে।”(সূরা নূরঃ৩১)

ওড়না বা ‘খিমার’ হল সেই জিনিস যেটা মাথার উপর থেকে নিচে নেমে এসে মুখমন্ডল আবৃত করে আর ‘জিলবাব’ হচ্ছে একটি বাহ্যিক পোশাক যেটার মাধ্যমে একজন নারী তার সমস্ত দেহ আবৃত করতে পারে তার শরীরে যেকোন অংশের প্রদর্শন ব্যতীত।
আল্লাহ্ সুবহানাওয়াতা’আলা বলেনঃ “তোমরা তাঁর(রাসূল সাঃ) পত্নীগণের কাছে কিছু চাইলে পর্দার আড়াল থেকে চাইবে।”(সূরা আহযাবঃ৩৩)

তাই হিজাব হল নারীদের জন্য সুরক্ষা দূর্গস্বরূপ যাতে করে তাদেরকে খেলার সামগ্রী হিসেবে বিবেচনা করার কোন অবকাশ না থাকে।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s