কুরআন অর্থ সহকারে বুঝে পড়া অধিক জরুরি। কেন ?

ন্যায় ও অন্যায়ের পার্থক্য, ভালো ও মন্দের ব্যবধান ও কল্যাণ অকল্যাণের দূরত্ব বুঝতে হলে কুরআন অর্থ সহকারে বুঝে পড়া অধিক জরুরি। কেন ? মুসলমানদের নিকট সর্বশ্রেস্ট পুরুস্কারটি না বুঝে পড়া হয়। অর্থাৎ কেন অনুধাবন ছাড়া পাঠ করা হয়? অথচ আল্লাহ্‌ সুবহানাহু তায়ালা- (সুরা-আল কামার, অধ্যায়-৫৪, আয়াত-১৭,২২,৩২ ও ৪০)– একি কথা চার বার বলেছেন—
“”আমি কোরআনকে সহজ করে দিয়েছি বোঝার জন্যে। অতএব, কেউ আছে কি? এ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করার।“”

আল্লাহ্‌ সুবহানাহু তায়ালা- (সুরা-যুমার, অধ্যায়-৩৯, আয়াত-২৭) এ বলেছেন—
“”আমি এ কোরআনে মানুষের জন্যে সব দৃষ্টান্তই বর্ণনা করেছি, যাতে তারা অনুধাবন করে;“”

পবিত্র কুরআন বারবার বুঝে পড়ার তাগিদ দেয়া হয়েছে…
আল্লাহ্‌ সুবহানাহু তায়ালা- (সুরা-বাক্বারাহ, অধ্যায়-২, আয়াত-২৪২) এ বলেছেন—
“”এভাবেই আল্লাহ তা’আলা তোমাদের জন্য তাঁর বিধানকে স্পষ্ট ভাবে বর্ণনা করেন যাতে তোমরা তা বুঝতে পার।“”

আল্লাহ্‌ সুবহানাহু তায়ালা আর বলেছেন- (সুরা-নাহল, অধ্যায়-১৬, আয়াত-১২)
“” নিশ্চয়ই এতে বোধশক্তিসম্পন্নদের জন্যে নিদর্শনাবলী রয়েছে।“”

তাই আমি আশা করি মুসলিম ভাই ও বোনেরা পবিত্র কুরআন বুঝে পড়ার দিকে মনোযোগী হবেন। যে দিনগুলো চলে গেছে সেগুলোর কথা না ভেবে আজ থেকে বাকি দিনগুলোতে আমরা নিয়মিতভাবে কুরআন তিলাওয়াত করবো, বুঝবো এবং সে অনুযায়ী আমল করবো।
প্রথমত, আমাদের কাজ হচ্ছে পবিত্র কুরআনের অর্থ বুঝতে পারা, এরপর আমাদের দায়িত্ব সে অনুযায়ী আমল করা। এবং অন্যদের ও বুঝাব। কারণ—
মহানবী (সাঃ) বলেছেন, যা (সহীহ বুখারী, ৬ষ্ট খণ্ডে, হাদিস নং ৫৪৫) এ আছে—

“”তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম সেই ব্যক্তি যে নিজে কুরআন বুঝে পড়ে ও অন্যদের সেভাবে বুঝায়।“”
তাই আমরা সকলে কুরআন বোধগম্যতার সাথে পড়ার উদ্যোগী হবো— ইনশাআল্লাহ্‌ —

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s